দৈনিক ২৪ ঘন্টা, সপ্তাহে ৭ দিন সর্বশেষ সংবাদ নিয়ে

মাদারীপুর ২৪ ডটকম

Ruposhi Online

শিবচরের কাওড়াকান্দি ঘাটে রহস্যময়ভাবে প্রায় এক কেজি স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার

সংশ্লিষ্ট বিভাগ: আইন-শৃঙ্খলা,গুরুত্বপূর্ণ খবর,প্রধান সংবাদ,শিবচর,সব সংবাদ |

উদ্ধারকৃত স্বর্ণালঙ্কারের সামনে থানায় বসে ইউএনও ও ওসি। ছবি: সংগৃহীত।

উদ্ধারকৃত স্বর্ণালঙ্কারের সামনে থানায় বসে ইউএনও ও ওসি। ছবি: সংগৃহীত।

মাদারীপুরের কাওড়াকান্দি ঘাটে ব্যাগভর্তি ১০৬ ভরি অর্থাৎ প্রায় এক কেজির মত স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার করে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয় জনতা। তবে এ সময় স্বর্ণ বহনকারী পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে।
স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সন্ধ্যার দিকে মাওয়া-কাওড়াকান্দি রুট পারাপারের জন্য কাওড়াকান্দি ঘাটের সী-বোটে একটি ব্যাগভর্তি স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে ওঠে দুই যাত্রী। তাদের রহস্যময় ও অসংলগ্ন আচরণের জন্য প্রশ্ন জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করতেই তারা ব্যাগ ফেলে পালিয়ে যায়। ব্যাগভর্তি স্বর্ণালঙ্কারের বিষয়টি টের পেয়ে সুজন মাদবর ও মাসুদ মাদবরসহ ঘাটের কয়েকজন মালিক-শ্রমিক ও প্রভাবশালী গোপন রাখার চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে স্বর্ণভর্তি ব্যাগ কাওড়াকান্দি ঘাটের পরিবহন ক্ষেত্রের নেতৃত্ব দেয়া মাসুদ মাদবরের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় স্থানীয় লোকজন ওই বাড়িতে গিয়ে প্রতিবাদ জানিয়ে বিষয়টি থানায় অবহিত করতে বলেন এবং তার পুলিশে খবর দেন।
পরে খবর পেয়ে শিবচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইমরান আহমেদ, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাকির হোসেন ও এসআই কামরুলসহ পুলিশের একটি দল সেখানে গিয়ে স্বর্ণালঙ্কার জব্দ করে। উপস্থিত জনগণের দাবীর মুখে পাঁচ্চর বাজারের ব্যবসায়ী সুজন পালকে দিয়ে স্বর্ণালঙ্কারগুলো মাপ-জোক করান প্রশাসনের কর্মকর্তারা। সকলের সামনে ব্যাগ খুলে তার মধ্যে তিনটি বাক্স পাওয়া যায়। বাক্স তিনটিতে থাকা আংটি, চুড়ি, ব্রাসলেট, নেকলেস, চেইনসহ বিভিন্ন ধরণের ১০৬ ভরি স্বর্ণালঙ্কার মাপা হয়। পরে সেগুলো জব্দ করে থানায় নিয়ে যান প্রশাসনের কর্মকর্তারা। তবে স্বর্ণগুলো কোথা থেকে এসেছে, কে বহন করেছে এবং কোথায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল তা কেউ নিশ্চিত করতে পারেনি। তবে সি-বোটে ওঠার সময় স্বর্ণ রেখে দু’ব্যক্তি শত শত লোকের সামনে কিভাবে পালিয়ে গেল এ নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। এ ব্যাপারে তদন্ত করলে আরো বড় ধরণের কোন ঘটনা বেড়িয়ে আসতে পারে বলে স্থানীয়দের অভিমত।
এদিকে শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাকির হোসেন সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ‘সম্ভবত ডাকাতি করা স্বর্ণালঙ্কার অথবা পাচার করে কোথাও নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল এগুলো। ঘটনাস্থলে ১০৬ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ওজন করা হলেও মূলত থানায় এসে আবার পরিমাপ করে ১০০ ভরি স্বর্ণ পাওয়া গেছে। কাওড়াকান্দি ঘাটে বসে মাপ ভুল হয়েছিল।’

QR Code - Take this post Mobile!
Use this unique QR (Quick Response) code with your smart device. The code will save the url of this webpage to the device for mobile sharing and storage.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *